17
Dec

বাসায় জায়গা নেই, গাছের টব কোথায় রাখবো?

বাসায় জায়গা নেই, গাছের টব কোথায় রাখবো?
সারাদিন বাইরে থাকি কখন গাছের যত্ন করব?

আসলে ব্যাপারটা হলও ‘ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়’ । ঘরের ভেতর গাছ মানে যে ফুলের গাছ বা সব্জির চারাগাছ কিংবা অনেকগুলা টব কিনে ঘর ভরপুর করে ফেলানা। একটু হালকা ভাবে চিন্তা করে দেখুন। ঘরের ভেতর ছোট্ট ছোট্ট লতানো পাতা, গুল্ম, চারা, কোথাও গাড় আবার কোথাও হালকা সবুজ, কি চমৎকারই না লাগবে। আমাদের এই শহুরে কংক্রিটের দেয়ালে সবুজের স্বাদ আমরা নিতেই পারি খুব সহজ ভাবে।

বাসায় যদি অব্যবহৃত বোতল থাকে তবে সেগুলোতে পানি ভরে রাখতে পারেন জানালার পাশে। এরপর ফিলোডেন্ড্রন কিংবা হায়াসিন্থস-এর মতো সুগন্ধী ফুলের গাছ লাগিয়ে ফেলুন যা আপনার ঘরে প্রাকৃতিক সুগন্ধেরও ব্যবস্থা করবে । অন্যদিকে বোতলে সূর্যের আলো পড়লে নানা নকশায় আলোর প্রতিফলন ঘটবে মেঝেতে।
10849834_10205582432304902_4314398837785037736_n
শোবার ঘরে তৈরি করতে পারেন সুতোয় ঝোলানো বাগান। হ্যাঁ আপনি ঠিকই শুনেছেন। ঝুলন্ত বাগান তৈরির এই পদ্ধতিটিকে বলা হয় কোকেডামা যার অর্থ শ্যাওলার বল। এগুলো মূলত বল আকৃতির পাত্রে রাখা বনসাই যেগুলো শ্যাওলায় ঢাকা থাকে এবং পাত্রের বাইরে বাড়তে থাকে। এগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে আপনাকে সপ্তাহে একদিন এগুলোকে ১০-১৫ মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখতে হবে পানিতে।

শহরের অ্যাপার্টমেন্টে সাধারণত সমতল খোলা জায়গা পাওয়া কঠিন। তাই করিডোর বা লিভিং রুমের কোণায় খাড়াভাবে বাগান তৈরি করতে পারেন। একটি মই কিংবা খোলা তাকে ছোট ছোট পাত্র সাজিয়ে তাতে বাড়িতে রাখার মতো গাছগুলো দিয়ে তৈরি করে নিন নিজের বাগান।
22
একটি পাখির খাঁচা কিনে নিজের পছন্দমত রঙ দিয়ে রঙ করে নিন। একটি সুন্দর প্লান্টার নিয়ে খাঁচায় লাগিয়ে ফেলুন মৌরি, সুইট বাসিল কিংবা পুদিনাপাতার গাছ যেগুলো আপনি রান্নায়ও ব্যবহার করতে পারবেন। সিলিং কিংবা জানালার বাইরে থেকে ঝুলিয়ে দিন খাঁচাটি। এতে করে সবুজের পাশাপাশি পাখির খোঁজও পেয়ে যাবেন